English Version

বিদ্যুত স্পৃষ্ট হয়ে গার্মেন্টকর্মী স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জন দগ্ধ

নিউজ ডেস্ক::নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ১ লাখ ৩৩ হাজার ভোল্ট ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুতে স্পৃষ্ট হয়ে গার্মেন্টকর্মী স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জন দগ্ধ হয়েছেন।আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তাদের ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে মাহাবুব হোসেনের ৯৫ ভাগ ও তার স্ত্রী রনি আক্তারের ৯০ ভাগ শরীর পুড়ে গেছে। এ ছাড়া সুমি বেগম নামে আরেকজন ১০ ভাগ দগ্ধ হয়েছে।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ফতুল্লার বিসিক শিল্পনগরীতে ওহাব মিয়ার মালিকানাধীন তিনতলা ভবনের ছাদে এ ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি সন্ধ্যা পর্যন্ত কেউ সঠিক তথ্য জানাতে পারেনি।তবে রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ি সূত্র এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ফতুল্লার বিসিক শিল্পনগরীতে অবস্থিত ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কাছে ওহাব মিয়ার মালিকানাধীন তিনতলা ভবন। এ ভবনটির মালিক ইচ্ছাকৃতভাবে ১ লাখ ৩৩ হাজার ভোল্ট ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুতের তারের নিচে বহুতল ভবন করেছেন।

ভবনটি তৈরি করার সময় অনেকেই বাধাও দিয়েছে। কিন্তু ভবন মালিক ওহাব মিয়া কারো বাধাই শুনেননি। অবশেষে প্রাণ হারানোর পথে বাড়ির ভাড়াটিয়া দম্পতিসহ ৩ জন।

বিসিক ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র অফিসার কাজল মিয়া জানান, ছাদে কাপড় শুকাতে দিতে গিয়ে হাই ভোল্টেজের তারে প্রথমে জড়িয়ে পড়ে রনি আক্তার (২৩)। এ সময় তাকে বাঁচাতে ছুটে আসে তার স্বামী মাহাবুব (২৬)। তখন স্বামী-স্ত্রী দু’জনই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে জামায় আগুন ধরে যায়। ওই সময় সুমি বেগম (২৮) নামে আরও একজন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়েছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে বাড়ির মালিককে পাওয়া যায়নি।

 

 

সর্বশেষ সংবাদ