English Version

এই শিশু-কিশোরদের মাঝ থেকেই আগামী দিনের ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, বিজ্ঞানী বের হয়ে আসবে —ড. জাফর ইকবাল

লেখক, পদার্থবিদ ও শিক্ষাবিদ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছেন, ‘আজকের সাইন্স ফেয়ার দেখে আমি মুগ্ধ। এ সাইন্স ফেয়ার থেকে উপলব্ধি করলাম এই শিশু-কিশোরদের মাঝ থেকেই আগামী দিনের ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, বিজ্ঞানী বের হয়ে আসবে। এদের মধ্যে অনেকেই অনেক রিসার্চও করবে। তারাই পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশের নাম আরও উজ্জল করবে। এখান থেকে অনেক ভালো শিক্ষকও তৈরি হবে।’

বৃহস্পতিবার নগরীর রয়েল ইন্সটিটিউট অব স্মার্ট এডুকেশন (রাইজ) ও ইউরো কিডস স্কুল আয়োজিত সাইন্স ফেয়ার পরিদর্শন করতে এসে তিনি এমন মন্তব্য করেন। নগরীর সুবিদবাজার ক্যাম্পাস দু’টিতে পৃথক ভাবে এ সাইন্স ফেয়ার অনুষ্ঠিত হয়। এসময় তিনি শিশু-কিশোরদের তৈরিকৃত বিভিন্ন প্রজেক্ট দেখে প্রশংসা করেন।

দিনব্যাপী এ সাইন্স ফেয়ারে রাইজ স্কুলের শিক্ষার্থীরা জেনারেটর, ভেকুয়াম ক্লিনার, থার্ড আই গ্লাভস, এলইডি ডিসপ্লে, কিডনি মডেল, হাইড্রলিক আর্ম, হুইসেল আই মডেল, হেরন্স ফাউন্টেন, ওয়াটার লেভেল ইন্ডিকেটর, ইলেক্ট্রিক বাজ গেইম এবং ইউরোকিডস স্কুলের শিক্ষার্থীরা ফিজ রেইনবো, এলিফেন্ট টুথপেস্ট, এগ ফ্লোটিং, ওয়াটার ডেনসিটি, বেলুন ক্লে, লিকুইড নাইট্রোজেন ম্যাজিক, রকেট ফ্লাইংসহ একাধিক বিজ্ঞান প্রকল্প উপস্থাপন করেন।

এ সাইন্স ফেয়ার পরিদর্শন করতে আসেন ড. জাফর ইকবালের সহধর্মীনি অধ্যাপক ড. ইয়াসমিন হক। এছাড়া ড. মানস কান্তি বিশ্বাস, রাইজের প্রিন্সিপাল মার্ক এডওয়ার্ড, ইউরো কিডস এর প্রিন্সিপাল রুশিনা চৌধুরী, ইউরো কিডস এর এসিসটেন্ট সেন্টার হেড সাবরিনা আক্তার, রাইজের প্রাইমারী হেড জিনাত মোস্তফা, রাইজের সেকেন্ডারি হেড শফিকুল ইসলাম পাটোয়ারীও এসময় তাদের সাথে সাইন্স ফেয়ারের বিভিন্ন প্রজেক্ট ঘুরে দেখেন।

এ আয়োজনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন রাইজের হেড অব সাইন্স মে. আব্দুল আল মাসউদ। অনুষ্ঠানে বোর্ডের সদস্যবৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক-শিক্ষিকা অভিভাকগণও উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি

 

সর্বশেষ সংবাদ