English Version

বড়লেখায় পাখি শিকারী মূচলেকায় মুক্ত

বড়লেখা প্রতিনিধি:: বড়লেখায় হাকালুকি পারের অতিথি পাখির অভয়াশ্রম থেকে অবাধে পাখি শিকার চলছে। শুক্রবার সকালে ৩ শতাধিক পানকৌড়ি ও বক জাতীয় পাখির ছানা নির্বিচারে ধরে খাঁচায় ভরে পাচারের সময় স্থানীয় জনতার সহায়তায় পাখি রক্ষণাবেক্ষণ কমিটির সদস্য সাকেল আহমদ অসাধু শিকারীদের আটক ও পাখির ছানাগুলো উদ্ধার করেন। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুচলেকায় তাদেরকে ছেড়ে দেন।
জানা গেছে, উপজেলার তালিমপুর ইউনিয়নের হাল্লা গ্রামের মাস্টার বাড়িতে হাকালুকি হাওরে আগত অতিথি পাখিসহ দেশীয় বিভিন্ন প্রজাতির পাখিরা আবাসস্থল গড়ে তুলে।

প্রশাসন এ বাড়িকে সরকারীভাবে পাখির অভয়াশ্রম ঘোষণা করে রক্ষণাবেক্ষনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে। কিন্তু স্থানীয় অসাধু পাখি শিকারীরা প্রায়ই বিভিন্ন পন্থায় পাখি শিকার করে নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার রাতভর পাখির অভয়াশ্রমের পাখির বাসায় তান্ডব চালিয়ে তিন শিকারী ৩ শতাধিক পানকৌড়ি ও বকের ছানা ধরে খাঁচায় ভরে রাখে। শুক্রবার সকালে পাখির ছানাগুলো পাচারকালে হাল্লা অতিথি পাখির অভয়াশ্রম রক্ষণাবেক্ষণ কমিটির সদস্য সাকেল আহমদ স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ছানাগুলোর খাঁচাসহ পাচারকারীদের স্থানীয় কুঠাউরা বাজারের একটি দোকানে আটক করেন। বিকেলে মূচলেকা আদায় করে তাদেরকে ছেড়ে দেন ইউপি চেয়ারম্যান বিদ্যুৎ কান্তি দাস।

তালিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান বিদ্যুৎ কান্তি দাস জানান, ভবিষ্যতে পাখি নিধনের মতো অপরাধ না করার শর্তে তিনি মূচলেখা আদায় করে তাদেরকে ছেড়ে দিয়েছেন এবং উদ্ধার করা পাখিগুলো অবমুক্ত করেছেন।

 

সর্বশেষ সংবাদ