English Version

২ লাখ টাকা অনুদান পাবেন সরকারি কর্মচারীরা

নিউজ ডেস্ক:: জটিল ও দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত সরকারি কর্মচারীদের চিকিৎসা অনুদান এক লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে দুই লাখ টাকা করা হয়েছে। একই সঙ্গে কল্যাণ তহবিলে দেয়া চাঁদার পরিমাণও বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) চাঁদা ও অনুদানের পরিমাণ বাড়িয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহম্মদ স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ কর্মচারী বোর্ডের বোর্ড সভার সিদ্ধান্ত এবং ‘বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড (সংশোধন) আইন, ২০১৮’ অনুযায়ী কর্মচারী কল্যাণ তহবিলে কর্মচারীদের প্রদেয় চাঁদা, কল্যাণ তহবিল থেকে প্রদেয় অনুদান ও কর্মচারীদের যৌথবীমা তহবিলে কর্মচারীদের প্রদেয় প্রিমিয়াম হার ও অন্যান্য অনুদানের পরিমাণ পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে।

কল্যাণ তহবিলের মাসিক সর্বোচ্চ চাঁদা নির্ধারণ করা হয়েছে মূল বেতনের এক শতাংশ কিন্তু সর্বোচ্চ ১৫০ টাকা। আগে এটা ছিল মূল বেতনের এক শতাংশ বা সর্বোচ্চ ৫০ টাকা।

যৌথবীমার মাসিক সর্বোচ্চ প্রিমিয়াম ছিল ৭০ টাকা, এখন সেটা মূল বেতনের শূন্য দশমিক ৭০ শতাংশ কিন্তু ১০০ টাকা করা হয়েছে।

মাসিক কল্যাণ ভাতা এক হাজার থেকে বাড়িয়ে দুই হাজার টাকা করা হয়েছে। সাধারণ চিকিৎসা অনুদান সর্বোচ্চ ২০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৪০ হাজার টাকা হয়েছে।

দাফন বা অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া বাবদ সহায়তা ৫ হাজার থেকে বেড়ে ১০ হাজার টাকা হলো। যৌথবীমার এককালীন অনুদান এক লাখ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে দুই লাখ টাকা।

জটিল ও দুরারোগ্য ব্যাধির চিকিৎসা অনুদানও এক লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে দুই লাখ টাকা করা হয়েছে।

 

সর্বশেষ সংবাদ