English Version

১৪ বছর পর আজ সিলেট মহানগর যুবলীগের সম্মেলন

নিউজ ডেস্ক:: দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে আজ শনিবার সিলেট মহানগর যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ২ টায় নগরীর বন্দরবাজারের রেজিস্টারি মাঠে শুরু হবে এ সম্মেলন। সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী ও এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড. একে আব্দুল মোমেন।

এদিকে সম্মেলনের পরপরই নগরীর রিকাবীবাজারের কাজী নজরুল অডিটোরিয়ামে কাউন্সিলরদের ভোট হবার কথা রয়েছে। আর এই ভোটের মাধ্যমেই যুবলীগের নেতৃত্ব বাছাই করা হবে।

দীর্ঘ দিন পর ভোটের মাধ্যমে নেতৃত্ব বাছাইকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। প্রার্থীরা নিজ উদ্যোগে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ব্যানার ফেস্টুন লাগিয়েছে ভোট চাইছেন। আবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও চলছে সমান তালে প্রচার-প্রচারণা। পিছিয়ে নেই প্রার্থীদের কর্মী সমর্থকরাও। তারাও নগরজুড়ে ব্যানার ফেস্টুন লাগিয়েছেন। পাশাপাশি সবর রয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও।

এর আগে ২০০৪ সালে মহানগর যুবলীগে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেই সম্মেলনে সমঝোতার মধ্যে দিয়ে সৈয়দ শামীম আহমদ ও আবদুর রহমানের নেতৃত্বাধীন কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হলে ২০১৪ সালে কেন্দ্রীয়ভাবে আলম খান মুক্তিকে আহ্বায়ক করে ৫ সদস্যবিশিষ্ট এ কমিটিকে তিন মাসের মধ্যে সম্মেলন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়। কিন্তু পাঁচ বছরেও মহানগর সম্মেলন হয়নি।

এরপর বেশ কয়েকবার কমিটির অদলবদল হলেও সম্মেলনের মাধ্যমে নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেননি কর্মীরা। তাই নিয়ম রক্ষার কমিটিতে উচ্ছ্বসিত হলেও ভোটাধিকার প্রয়োগের আমেজ যেন মহানগর কর্মীদের জন্য ছিলো স্বপ্ন মাত্র। তবে এবার প্রার্থী বেশি হওয়ার ভোটেরর মাধ্যমে নেতৃত্বে নির্বাচিত হওয়া এক প্রকার নিশ্চিত।

তবে ভোট কিংবা সমঝোতা হলেও দীর্ঘ পাঁচ বছর মহানগর যুবলীগের আহবায়ক থাকার সুবাধে সভাপতি হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন আলম খান মুক্তি। এছাড়া এই পদে মহানগর যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সিনিয়র সদস্য শান্ত দেব এবং সুবেদুর রহমান মুন্না আলোচনায় আছেন।

আর মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আহবায়ক কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মুশফিক জায়গীরদার, যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল লতিফ রিপন, ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র নেতা জাকিরুল আলম জাকির ও সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম রায়হান চৌধুরী আলোচনায় আছেন।

আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মুসফিক জায়গীরদার বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর সম্মেলন হচ্ছে এজন্য সকল নেতাকর্মীরা উচ্ছ্বসিত। অতিতে নানা কারণে সম্মেলন করা সম্ভব না হলেও এবার সম্মেলন ঘিরে প্রায় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। ভোটাধিকারের মাধ্যমে কর্মীরা তাদের পছন্দের প্রার্থী নির্বাচিত করবেন। আমরা আশাবাদী সকলের সহযোগিতায় গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার এ কমিটির মাধ্যমে সকলের ইচ্ছার প্রতিফলন হবে।’

 

সর্বশেষ সংবাদ